পার্বত্য চট্টগ্রামে বিষয়ক আন্তর্জাতিক কমিশনের আপত্তিঃ গাইবান্ধার এসপিকে খাগড়াছড়িতে পদায়নে উদ্বেগ

পার্বত্য চট্টগ্রামের জনগণের অধিকারের পক্ষে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক আন্তর্জাতিক কমিশন কাজ করে যাচ্ছে। ছবি সৌজন্যঃ ইন্টারনেট

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক আন্তর্জাতিক কমিশন গাইবান্ধার সাবেক পুলিশ সুপার মো. আশরাফুল ইসলামকে খাগড়াছড়িতে পদায়ন করে বদলীতে উদ্বেগ প্রকাশ ও বদলী বাতিলের অনুরোধ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নিকট চিঠি প্রেরণ করেছে। সংবাদ মাধ্যমে গত ২৮ ফেব্রুয়ারি প্রেরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক আন্তর্জাতিক কমিশন বলেছে,  পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক আন্তর্জাতিক কমিশন সংবাদপত্রের মাধ্যমে অবগত হয়েছে যে, গাইবান্ধার সাবেক পুলিশ সুপার মো. আশরাফুল ইসলামকে খাগড়াছড়ির মহালছড়িতে ৬ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) অধিনায়ক হিসেবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে বদলির আদেশ প্রদান করা হয়েছে। উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ৬ নভেম্বর দায়িত্বে অবহেলা এবং গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জের সাঁওতাল পল্লীতে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় পুলিশের সম্পৃক্ততা প্রমাণিত হওয়ায় এই পুলিশ সুপারকে গাইবান্ধা থেকে প্রত্যাহারের জন্য উচ্চ আদালত নির্দেশ দিয়েছেন। অথচ সেই পুলিশ সুপারকে পার্বত্য চট্টগ্রামের খাগড়াছড়ির মহালছড়িতে পদায়ন করাতে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক আন্তর্জাতিক কমিশন গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে।

উগ্র সাম্প্রদায়িক ভাবাপুষ্ট গোষ্ঠীি গত ২০১৪ সালের ৫ জুলাই রাঙামাটি শহরে প্রকাশ্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক আন্তর্জাতিক কমিশনের প্রতিনিধিদলের উপর হামলা করে। তবে হামলার সাথে জড়িতরা কখনোই গ্রেপ্তারের সম্মুখীন হননি। ছবি সৌজন্যঃ ইন্টারনেট

যার বিরুদ্ধে সাঁওতাল জাতিগোষ্ঠীর পল্লীতে অগ্নিসংযোগে সম্পৃক্ততার অভিযোগ উচ্চ আদালতে প্রমাণিত হয়েছে তাকেই আবার পার্বত্য চট্টগ্রামে পদায়ন করলে সেখানে তিনি কতটা সংবেদনশীলতা, সহমর্মিতা, নিরপেক্ষতা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করবেন, সে বিষয়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম কমিশনের যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে।
তাই এমন ঝুঁকিপূর্ণ সিদ্ধান্ত জরুরি ভিত্তিতে বাতিল করে উক্ত পক্ষপাতদুষ্ট ও ন্যায়বিরূদ্ধ পুলিশ কর্মকর্তাকে অবিলম্বে খাগড়াছড়ি তথা পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে প্রত্যাহার করে নেয়ার জন্য পার্বত্য চট্টগ্রাম কমিশনের পক্ষ থেকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে বিশেষভাবে অনুরোধ জানানো হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

Print Friendly

Post Comment