লক্ষীছড়িতে পাহাড়ধস- ক্ষতিগ্রস্তদের খোঁজ নিয়েছেন চেয়ারম্যান সুপারজ্যোতি চাকমা

তারিখঃ ১৮ জুন, ২০১৭

খাগড়াছড়ি জেলার লক্ষীছড়ি উপজেলার বর্মাছড়ি ইউনিয়নে গত ১৩ জুন পাহাড়ধসে নিহত হয়েছেন একজন এবং আহত হয়েছেন একই পরিবারের ৭ জন। নিহত ব্যক্তির নাম পরিমল চাকমা। আহতদের মধ্যে ৫ জনকে উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসা প্রদান করা হয়। একই পরিবারের বাকি দুইজন, মা ও মেয়ের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদেরকে গত ১৪ জুন চট্টগ্রাম হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।
এদিকে লক্ষীছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান সুপার জ্যোতি চাকমা গত ১৫ জুন লক্ষীছড়ি হাসপাতালে আহতদের দেখতে যান। তিনি আহতদের সাথে সহমর্মিতা প্রকাশ করেন। এছাড়া তিনি নিহত ব্যক্তির পরিবারকে ত্রাণ বিতরণ কমিটি ও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নগদ ৬ হাজার টাকা ও আহতদের প্রতিজনকে চিকিৎসা বাবদ ২ হাজার টাকা করে সহায়তা প্রদান করেন। এ সময় উপজেলা চেয়ারম্যানের সাথে উপস্থিত ছিলেন লক্ষীছড়ি উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অংগ্যপ্রু মারমা, দুল্যাতলি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ত্রিলন চাকমা, নারী নেত্রী সুমনা চাকমা, সন্ধ্যা চাকমা প্রমুখ।

আহতদের খোঁজখবর নেয়ার পর চেয়ারম্যান সুপার জ্যোতি চাকমা পাহাড়ধসে নিহত ও আহত ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারসমূহকে চিকিৎসার ব্যবস্থা ও তাদের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে লক্ষীছড়ি উপজেলাবাসীকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, পাহাড়ধসের কারণে লক্ষীছড়ি উপজেলায় যেসকল পরিবার ক্ষতির শিকার হয়েছেন তারা মানবেতরভাবে দিনতাপিাত করছেন। তারা এখন অভাবে রয়েছেন। এই বিপদের দিনে তাদের সকলক্ষেত্রে সহায়তা করতে লক্ষীছড়িবাসীর দায়িত্ব রয়েছে।

আহত ও নিহত পরিবারকে সহায়তা প্রদানে আগ্রহীদের লক্ষীছড়ি উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান ও লক্ষীছড়ি উপজেলা ত্রাণ সংগ্রহ ও বিতরণ কমিটির আহ্বায়ক অংগ্যপ্রুর মারমার সাথে যোগাযোগ করতে অনুরোধ করা যাচ্ছে। যোগাযোগ নাম্বার- ০১৮৫৮৮৭৬০৯২

Print Friendly

Post Comment